বর্ষা বরণ ২০১৯

‘ওগো সন্যাসী, কী গান ঘনাল মনে।
গুরু গুরু গুরু নাচের ডমরু বাজিল ক্ষণে ক্ষণে।
তোমার ললাটে জটিল জটার ভার নেমে নেমে
আজি পড়িছে বারম্বার বাদল আঁধার মাতাল তোমার হিয়া,
বাঁকা বিদ্যুৎ চোখে উঠে চমকিয়া’।

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তাঁর ‘বর্ষা-মঙ্গল’ কাব্যে এভাবেই আমন্ত্রণ জানিয়েছেন লাবণ্যস্নিগ্ধ রূপবতী বর্ষাকালকে। কর্মব্যস্ত নাগরিক জীবনের ক্লান্তিমুখর দিনে কোনো এক ফাঁকে অফিস বারান্দায় দাঁড়ালে অকস্মাৎ চোখ যায় আকাশের দিকে, যেখানে ঘনিয়ে আসছে নিকষ কাজল কালো মেঘমালা, গুরু গুরু মেঘের গর্জন, সেই সঙ্গে ভেজা শীতল বাতাস- কেন জানি মনটা হঠাৎ এলোমেলো হয়ে যায়। বর্তমানের দরজায় এসে দাঁড়ায় হারিয়ে যাওয়া অতীত, মনে পড়ে যায় কবেকার স্মৃতি! অজান্তেই ভেতরে কে যেন গেয়ে ওঠে চেনাসুর, ‘আজি ঝরো ঝরো মুখর বাদল দিনে জানি নে, জানি নে কিছুতেই কেন যে মন লাগে না ।।’

বর্ষা মানে জানালার বাইরের ঝুম বৃষ্টিতান আর ভেতরে সাউন্ড সিস্টেমে রবিঠাকুরের বর্ষাবন্দনার মিশেল। শহরে বর্ষা মানেই রাস্তার পাশে সমহিমায় ফোঁটে থাকা জীবন্ত কদম ফুল মাথায় পরবার রমণীর আজন্ম সাধ। বর্ষা মানেই আকাশে বিষণ্ণ মেঘমেদুরের ছায়া দেখেই মায়ের কাছে খিচুড়ির আবদার, চায়ের কেতলি মিহি আঁচে চুলায় চাপানো। শহুরে বর্ষা মানে রিকশার হুডের নিচে কপোত-কপোতীর নিজেদের নতুন করে আবিষ্কার, ‘এমন দিনে তারে বলা যায় এমন ঘনঘোর বরিষায়। ‘

সাহিত্যের পাতা আর প্রেমিকের কবিতায় বিচরন শেষে , কদম গুচ্ছ হাতে নিয়ে তৈরি প্রেমিকার অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে, এই বিষাদগ্রস্ত ধুলোময় প্রাচীন শহরে, অবশেষে আবির্ভাব হল বর্ষার। সেই বৃষ্টি নামার তাল গুনতে ব্যস্ত পথিক , ব্যস্ত সকলে।

আকস্মিক বর্ষাধারায় শহর আক্রান্ত হলে কোনো এক পথচারী হয়তোবা ইচ্ছে করেই তার বর্ষাতি উন্মুক্ত করা থেকে নিবৃত্ত থাকে, গায়ে বৃষ্টির সরব ফোঁটা নিরবে মেখে নেয়ার আকাঙ্ক্ষায়। কর্মক্লান্ত শহরবাসীর কাছে বর্ষার উদযাপন এসব অতি ক্ষুদ্র অনুষঙ্গের মাঝেই সীমিত। এই ব্যস্ত শহরের না বলা সব গল্পের অহেতুক ভীড়ে, নতুন করে গল্প তৈরির আশ্বাস নিয়ে, MIST ক্যাম্পাসে প্রথমবারের মত আয়োজিত হতে যাচ্ছে বর্ষা উৎসব !

শুষ্ক ইটের লালচে প্লাজা, এবার প্রান পাবে নীলচে শাড়ির স্নিগ্ধতায়। শহুরে জীবনে বর্ষার এতসব হাজারো আবেদনের সুরের অনুপ্রেরণায়, এমআইএসটি লিটারেচার এন্ড কালচারাল ক্লাবের আয়োজন Airtel YOLO Fest নিবেদিত ‘বর্ষা উৎসব’।

আগামী ১৬ই শ্রাবণ এমআইএসটি প্রাঙ্গণ সাজবে বর্ষার সম্মোহনী সাজে, উদযাপন করবো আকুল শ্রাবণ ধারা, যে ধারা আসে আমাদের সারাবছরের ধুলিমলিন জীবনে এক আশ্চর্য বার্তা নিয়ে। সে বার্তা সুদূরের- সে বার্তা নুতনের।

বর্ষাকে বরণ করে নিতে, MIST Literature And Cultural Club এর আয়োজনে থাকবে নানান রূপের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা, যার সাক্ষী হবে শহরবন্দী মেঘ। আর আমাদের সাথে মঞ্চ কাপাতে আসছে আমাদের সবার প্রিয় ব্যান্ড Artcell!

এই করুণ নেক্রোপলিস এর হাজারো অজুহাত থেকে রেহাই পেয়ে, এক মুঠো বৃষ্টির বিশ্বাস পেতে, এ বর্ণিল বর্ষা আয়োজনে আপনারা সবান্ধব আমন্ত্রিত।।

Go to Event

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *